• Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1

রাজশাহী: শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

বাগমারায় পল্লী বিদ্যুতের শক সার্কিটের অগ্নিকান্ডে পাঁচটি দোকান ভস্মিভূত, ২০ লাখ টাকার ক্ষতি

বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারায় পল্লী বিদ্যুতের শক সার্কিটের অগ্নিকান্ডে ৫ টি দোকান ভস্মিভূত হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস ঘটনারস্থলে পৌছে দুই ঘন্টার চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। ওই অগ্নিকান্ডে ৫ টি দোকানের প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত দোকানীরা জানিয়েছেন। ওই ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত দোকানীরা ক্ষতিপূরনের দাবী জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন। অভিযোগের পর পরইবৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিউল ইসলাম ও উপজেলা প্রকল্পবাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান।
উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরের লিখিত অভিযোগ সূত্র জানা যায়, গত বুধবার গভীর রাতে উপজেলার গনিপুর ইউনিয়নের আমতলী মোড়ে বিদ্যুতের শক সার্কিট থেকে মুদিদোকানী ইউনুছ আলীর ঘরে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়। অগ্নিকান্ডে মুদি দোকানী ইউনুছ আলীর মুদি দোকান,বয়লার মুরগীসহ মুরগি রাখার ভস্মিভূত হয়। অগ্নিকান্ডে ইউসুছ আলীর দোকানে প্রায় ৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হয়। একই অগ্নিকান্ডে মুদি দোকানী আশরাফুল ইসলামের ৩ লক্ষ, মতিউর রহমানের ৪ লক্ষ, ইছাহাক আলীর ২ লক্ষ ও ঔষুধ ফার্মেসী আব্দুর রহমানের দোকান ভস্মিভূত হয়ে প্রায় ৪ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হয়।
মুদি দোকানী ইউনুছ আলী অভিযোগ করে বলেন, পল্লী বিদ্যুতের গাফলতি ও অবহেলার কারনে আমাদের দোকান গুলো পুড়ে গেছে। মুদি দোকানী আশরাফুল ইসলাম অবিযোগ করে বলেন, রাত আড়াইটার দিকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত ঘটে। বিষয়টি জানানোর জন্য নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর অভিযোগ কেন্দ্রে বার বার ফোন করে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। বিষয়টি বাগমারা ফায়ার সার্ভিসকে অবহিত করলে তারা দ্রুত ঘটনাস্থলে আসেন এবং আগুন নিভানোর চেষ্টা করেন। আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার পূর্বেই ৫ টি দোকান পল্লী বিদ্যুতের অগ্নিকান্ডে ভস্মিভূত হয়ে যায়। খবর পেয়ে রাতেই বাগমারা থানার পুলিশ ও গনিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান রঞ্জু ঘটনাস্থলে যায় এবং অগ্নিকান্ডের খোঁজ খবর নেয়। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান রঞ্জু পল্লী বিদ্যুৎ কর্মকর্তাদের গাফলতি ও অবহেলাকে দায়ী করেছেন। তিনিও পল্লী বিদ্যুতের অহেতুক কর্মকান্ডের জন্য ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতি পূরনের দাবী জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি- ১এর ডিপুটি জেনারেল ম্যানেজার রেজাউল করিম কোনই মন্তব্য করেননি। অপর দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিউল ইসলাম জানান, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের গাফলতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তিনি পল্লী বিদ্যুতের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানাবেন বলে তিনি জানিয়েছেন।
সানশাইন অনলাইন / এমবি