• Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1

রাজশাহী: শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮

নওগাঁয় সাংবাদিকদের সাথে ফার্টিলাইজার এ্যসোসিয়েশনের মতবিনিময় সভা

নওগা প্রতিনিধি: জেলা ফার্টিলাইজার এ্যসোসিয়েশন আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন আগামীতে নওগাঁ জেলায় সারের সংকট দেখা দেয়ার আশঙকা রয়েছে। যদিও জেলা প্রশাসক ও কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালকের সমন্বয়ে এবং তাদের তত্বাবধানে এ জেলায় সারের সুষ্ঠু বিতরণ ব্যবস্থা অব্যাহত রয়েছে।
বাংলাদেশ ফর্টিলাইজার এ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ নওগাঁ জেলা প্রেসক্লারেব কার্য নির্বাহী পরিষদের সদস্যদের সাথে আয়োজিত এক মতিবিনিময় সভায় এই মতামত ব্যক্ত করেছেন। তারা বলেছেন সান্তাহার বাফার গুদামে পর্যাপ্ত সারের মজুদ থাকলেও সেগুলো পুরাতন এবং ব্যবহারের অযোগ্য। ইতমধ্যে সেই সারগুলো জমাট বেধে গেছে এবং বস্তাগুলো ছেঁড়া ফাটা অবস্থায় রয়েছে।
তারা বলেছেন বর্তমানে সান্তাহার বাফার গুদামে ১৭ হাজার মেট্রিক টন সার মজুদ রয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার মেট্রিকটন নতুন এবং বাঁকীগুলো পুরাতন। পুরাতন এসব সার ক্রয় করতে এবং ফসলে ব্যবহার করতে অনাগ্রহ প্রকাশ করছেন কৃষকরা। ফলে গুদাম খালি হচ্ছে না।
তারা বলেছেন ইতপেূর্বে সান্তাহার বাফার গুদামটি ট্রানজিট গুদাম হিসেবে ব্যবহৃত হতো। এই গুদাম থেকে উত্তরাঞ্চলের সকল জেলায় সর সরবরাহ করা হতো। কিন্তু বর্তমানে উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় পৃথক পৃথক গুদাম নির্মিত হওয়ায় বর্তমানে এই বাফার গুদাম থেকে কেবলমাত্র নওগাঁ জেলার কৃষকদের মধ্যে সার সরবরাহ হয়ে থাকে।
এ কারণেও এখানকার মজুদ শেষ হয়না ফলে পুরাতন সারের মজুদ বৃদ্ধি পাচ্ছে। অনেকদিনের পুরাতন, জমাট বাধা ও ছেঁড়া ফাটা বস্তার কারনে এসব সার ব্যবহারের অযোগ্য মনে করে কৃষকরা এসব সার ক্রয় করছেন না। নুতন ভালো সার সরবরাহ না করলে আগামীতে জেলায় সার সংকট দেখা দেয়ার সম্ভাবনার আশঙ্কা করছেন এ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ।
এ মতবিনিময়সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ফার্টিলাইজারএ্যাসোসিিেয়শন নওগাঁ জেলা কমিটির সভাপতি রেজাউল করিম। এ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম, দীপক কুমার সরকার, আশরাফুল ইসলাম ও মিজানুর রহমান, সাধারন সম্পাদক রেজাউল হাসান রানা, কার্যকরী সদস্য হাজের আলী, ওয়াসেফ মোল্লা, নুরুল ইসলাম ও জিতেন্দ্রনাথ উপিস্থত ছিলেন।