• Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1

রাজশাহী: শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮

রাজশাহীবাসী আর পিছিয়ে থাকতে চায় না : লিটন

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ও সাবেক সফল মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, ৫ বছর রাজশাহীবাসীর কাছ থেকে হারিয়ে গেছে। রাজশাহীর কোনো উন্নয়ন হয়নি। আমরা কি আর পিছিয়ে থাকতে চাই? চাই না। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, দেশের সঙ্গে আমরা রাজশাহীবাসীও এগিয়ে যেতে চাই।
শুক্রবার সন্ধ্যায় নগরীর গুড়িপাড়া এলাকায় ১ নং ওয়ার্ড সামাজিক শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটির আয়োজনে ‘সুধী সমাবেশে’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে খায়রুজ্জামান লিটন এসব কথা বলেন। রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের সভাপতি ও ১ নং ওয়ার্ড সামাজিক শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটির আহ্বায়ক রবিউল আলম বাবুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টু। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক তাজমুল ইসলাম।
সমাবেশে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘রাজশাহীর উন্নয়নের স্বার্থে সবার ভোট চাই। নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করুন, নগরীর যা যা উন্নয়ন দরকার, সব করা হবে।’
খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘২০০৮ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত আমি মেয়র থাকার সময় রাজশাহী ঝকঝকে, চকচকে নগরীর হিসেবে গড়ে ওঠে। রাস্তাঘাট, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, পদ্মার পাড়ের উন্নয়নসহ সার্বিক ক্ষেত্রে উন্নয়ন সাধিত হয়। কিন্তু গত পাঁচ বছরে সব উন্নয়ন আমরা হারলাম। আমরা ৫ বছরে পিছিয়ে গেলাম। আমরা আর পিছিয়ে থাকতে চাই না। দেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, আমরাও সেভাবে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যেতে চাই।
এর আগে শুক্রবার বিকেলে শিরোইল কলোনী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ১৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আয়োজনে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মহাজোটের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্বীপনার সৃষ্টি হয়েছে। আমার ভালো লাগছে যে, স্বাধীনতার প্রতীক নৌকার জন্যে আপনারা এতো বিপুল সংখ্যক মানুষ একত্রিত হয়েছেন।
উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, নগরীর উন্নয়নে যা যা করা দরকার তাই করা হবে। শিরোইল কলোনীবাসীকে জমিজমার খাজনা নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে এদের সমস্যার স্থায়ী ব্যবস্থা করবো।
বক্তব্যের শেষের দিকে খায়রুজ্জামান লিটন উপস্থিত মানুষদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা কি রাজশাহীর উন্নয়ন চান? রাজশাহীর উন্নয়নে নৌকা মার্কায় ভোট দিবেন? এ সময় উপস্থিত প্রায় দেড় হাজার নারী-পুরুষ দুই হাত তুলে খায়রুজ্জামান লিটনকে ভোট প্রদানের প্রতিশ্রুতি দেন।
১৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা হেনা বেগম, মমতাজ বেগমসহ অন্যান্যরা বলেন, গত পাঁচ বছরে কোনো উন্নয়ন কাজ চোখে পড়েনি। রাস্তাঘাটের খুব খারাপ অবস্থা। যে মেয়র কোনো উন্নয়ন করতে পারেন না, তাকে কেউ ভোট দেবে না। রাজশাহীর উন্নয়নে লিটন ভাইয়ের বিকল্প নেই। তাই আমরা লিটন ভাইকে ভোট দেবো।
এদিকে, রাজশাহী মহানরীর রেলওয়ে কলোনীর বস্তিবাসীর জন্যে স্থায়ী বসতি ও বাড়ি গড়ে তুলে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত, মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী, সাবেক সফল মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। আজ শুক্রবার বিকেলে বস্তি পরিদর্শন ও গণসংযোগের সময় তিনি এ প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। খায়রুজ্জামান লিটনের প্রতিশ্রুতিতে আশ^স্থ হয়ে উন্নয়নের মার্কা নৌকায় ভোট দেওয়ার অঙ্গীকার করেন বস্তিবাসীরা।
জানা যায়, আজ শুক্রবার বিকেলে শিরোইল কলোনী এলাকায় গণসংযোগ ও জনসভায় শেষে মহানরীর রেলওয়ে কলোনীর বস্তি পরিদর্শনে যান খায়রুজ্জামান লিটন। এ সময় লিটনকে কাছে পেয়ে নিজেদের দুঃখ দুর্দশার কথা জানান বস্তিবাসীরা ও বসবাসের জন্যে স্থায়ী একটি জায়গারর ব্যবস্থার দাবি জানান। এ সময় খায়রুজ্জামান লিটন তাদের জন্যে স্থায়ী জায়গা ও বসতবাড়ি গড়ে তোলে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।
বস্তিবাসীকে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছিন্নমূল ও ভূমিহীন মানুষদের জন্যে বাড়ি নির্মাণ করে দিচ্ছেন। আমাকে কাজ করার সুযোগ দিন। আমি মেয়র নির্বাচিত হতে পারলে আপনাদের জন্যে স্থায়ী আবাসনের ব্যবস্থা করবো। আপনাদের জন্যে সুন্দর পরিবেশে থাকার ব্যবস্থা করা হবে।
খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, আপনাদের এখান থেকে কেউ উচ্ছেদ করতে পারবে না। কেউ উচ্ছেদ করতে আসলে অথবা উচ্ছেদ করা হবে বলে অপপ্রচার চালালে তাদের প্রতিহত করবেন। আমি আপনাদের লোক, সব সময় আপনাদের পাশে আছি।
খায়রুজ্জামান লিটনের কথায় আশ^স্থ হন বস্তিবাসীরা। আগামী ৩০ জুলাই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে খায়রুজ্জামান লিটনকে ভোট দেওয়ার অঙ্গীকার করেন তারা।
বস্তির বাসিন্দা শিরিন বেগম, রেশমা বেগম ও রশিদ প্রমাণিক বলেন, আমরা চাই আমাদের থাকার একটি জায়গা। লিটন ভাই আমাদের জন্যে সেই ব্যবস্থা করে দিতে চেয়েছেন। এতে আমরা অনেক খুশি। আমরা জানি তিনি যে কথা দেন সেটিই রাখেন। তাই আগামীতে আমরা লিটন ভাইকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করবো।
বস্তিবাসীর সঙ্গে বস্তির মসজিদে নামাজ পড়লেন লিটন: বস্তি পরিদর্শন ও গণসংযোগ করছিলেন এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এ সময় মাগরিবের নামাজের সময় হলে সবাইকে অবাক করে দিয়ে বস্তিবাসীর সঙ্গে বস্তির মসজিদেই নামাজ পড়েন তিনি। এতে হতভম্ব হয়ে যান বস্তিবাসীরা। প্রসঙ্গত, রেলওয়ে কলোনী বস্তিতে ৩৬০টি পরিবার বসবাস করে।
অপরদিকে, রাজশাহীর উন্নয়নের স্বার্থে নৌকায় ভোট চেয়ে নগরীতে গণসংযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত, মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী, সাবেক সফল মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত নগরীর আসাম ও শিরোইল কলোনী এলাকায় গণসংযোগ করেন তিনি।
বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর শালবাগানের পারহাউজের মোড় এলাকা থেকে গণসংযোগ শুরু করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত, মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী, সাবেক সফল মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এরপর বউ বাজার, রবের মোড়, শিরোইল আসাম কলোনী, শিরোইল কলোনী ইঞ্জিনিয়ারিং পাড়া, শিরোইল কলোনী স্কুল এলাকা, ছোটবোনগ্রাম এলাকায় লিফলেট বিতরণ করেন ও গণসংযোগ করেন। এসব এলাকার বিভিন্ন বাড়ি ও দোকানে গিয়ে রাজশাহীর উন্নয়নের স্বার্থে নৌকা মার্কায় ভোট চান খায়রুজ্জামান লিটন।
গণসংযোগের সময় এসব এলাকায় প্রচার মিছিল বের করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষেরা। ‘ লিটন ভাইয়ের সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন। উন্নয়নের মার্কা কি, নৌকা ছাড়া আবার কি। ৩০ তারিখ সারাদিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন। নৌকা মার্কায় দিলে ভোট, শান্তি পাবে দেশের লোক। নৌকা মার্কায় ভোট দিন, যোগ্য ব্যক্তি বেছে নিন। উন্নয়নের মার্কা, নৌকা মার্কা।’ এসব স্লোগানে স্লোগানে মুখর ছিল প্রচার মিছিলটি। মিছিলে উক্ত এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী পেশার শতশত নারী-পুরুষ স্বতশফূর্তভাবে অংশ নেন।
এদিকে গণসংযোগের শুরুতেই সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ মনোনীত, মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী, সাবেক সফল মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, বিএনপি মিথ্যাচার, অপপ্রচার,সংখ্যালঘু ভোটারদের হুমকি দিচ্ছে। এসব বিষয়ে ইসিতে ইতিমধ্যে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।
খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ভোটকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীরা অনেক উজ্জ্বীবিত। ভোটাদের মধ্যেও ব্যাপক উৎসাহ উদ্বীপনা দেখা দিয়েছে। আমরা শেষ দিন পর্যন্ত এমন পরিবেশ দেখতে চাই। অপর আরেক প্রশ্নের জবাবে সাবেক মেয়র লিটন বলেন, আমরা জয়ের ব্যাপারে অনেক আশাবাদী। শিরোইল কলোনী এলাকার বায়তুল মামুর জামে মসজিদে পবিত্র জুমার নামাজ আদায় করেন খায়রুজ্জামান লিটন। নামাজ শেষে মসুল্লিদের সাথে কুশল বিনিময় করেন তিনি।