• Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1
  • Meni 1

রাজশাহী: শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

বড়াইগ্রামে এইচএসসি ব্যবহারিক পরীক্ষায় অর্থ আদায়ের অভিযোগ

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি :বড়াইগ্রামের বিভিন্ন কলেজে এইচএসসি ব্যবহারিক পরীক্ষার নামে পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অবৈধভাবে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। বিষয় ভেদে এসব কলেজ কর্তৃপক্ষ পরীক্ষার্থীদের কাছ দুই থেকে পাঁচশ টাকা হারে আদায় করছে বলে জানা গেছে। চাহিদামাফিক টাকা না দিলে নম্বর কম দেয়াসহ ফেল করিয়ে দেয়ার হুমকির মুখে শিক্ষার্থীরা বাধ্য হয়েই টাকা দিয়েছে। এদিকে, কেন্দ্র ফি ও পরীক্ষকদের খুশি করার জন্য পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে এই টাকা নেয়া হচ্ছে বলে দাবী সংশ্লিষ্ট শিক্ষকদের।
জানা গেছে, উপজেলার ৯টি সাধারণ ও তিনটি কারিগরী পর্যায়ের কলেজ থেকে এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় প্রায় দুই হাজার পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। তাদের প্রায় সবারই কোন না কোন বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা রয়েছে। কারো কারো ৩-৪টি ব্যবহারিকও আছে। এসব শিক্ষার্থীদের প্রত্যেকের কাছ থেকে ব্যবহারিক পরীক্ষা সহ মৌখিক পরীক্ষা বাবদ বিষয় প্রতি দুইশ থেকে সর্বোচ্চ পাঁচশ টাকা হারে আদায় করছে এসব কলেজ। এর মধ্যে তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ের ব্যবহারিকে সর্বোচ্চ টাকা নেয়া হয়েছে। এভাবে উপজেলার প্রত্যেকটি কলেজ এবারের ব্যবহারিক পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে কমপক্ষে অর্ধ কোটি টাকা অবৈধভাবে হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। পরীক্ষার্থীদের এভাবে বাধ্য করে টাকা নেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিভাবকেরা।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন অভিভাবক জানান, ফরম পূরণের সময় কেন্দ্র ফি ও ব্যবহারিক পরীক্ষার খরচ দিয়ে দেয়া হয়েছে। কিন্তু এখন একই খাতে দ্বিতীয়বার টাকা নেয়াটা উচিৎ না। অবৈধভাবে টাকা আদায়ের বিষয়ে জানতে চাইলে বনপাড়া ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ পরিমল কুমার দাস এ ব্যাপারে কোন কথা বলতে রাজি হননি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আনোয়ার পারভেজ জানান, কোন কলেজ যদি অনৈতিক বা নিয়ম বহির্ভূতভাবে পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা আদায় করে থাকে তাহলে তদন্ত সাপেক্ষে সংশ্লিষ্ট কলেজ ও জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

AG